• , |
  • ঢাকা, বাংলাদেশ ।
সর্বশেষ নিউজ
* সমমনাদের সঙ্গে বিএনপির বৈঠক : রোডমার্চ, লংমার্চ ও সমাবেশের আসছে * আদালতের রায়ের পর শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের যৌক্তিকতা নেই: কাদের * রোববার কোটা বিরোধীরা সড়কে নামলেই কঠোর ব্যবস্থা নেবে সরকার * পার্লামেন্টে আস্থা ভোটে হারলেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী * রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে ইতিবাচক মিয়ানমার : পররাষ্ট্রমন্ত্রী * বাংলাদেশ সব দিক থেকেই ডুবে গেছে : আমীর খসরু * আবারো মিয়ানমারের শতাধিক সেনা ও বিজিপি সদস্য পালিয়ে এসেছে টেকনাফে * শনিবার সংবাদ সম্মেলন করে পরবর্তি কর্মসূচী ঘোষণা শিক্ষার্থীদের * অ্যান্ডারসনের বিদায়ী টেস্টে ইংল্যান্ডের দাপুটে জয় * রাবি শিক্ষার্থীদের রেললাইন অবরোধ

এক সময়ের স্বনামধন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আজ অনিয়মের বেড়াজালে বন্দি

news-details

ছবি-নিজস্ব


রংপুর জেলার মিঠাপুকুর উপজেলার শালমারা দ্বী-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়টি একসময়ে স্বনামের সহিত শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনানা করে আসছিলো কিন্তু দীর্ঘদিন যাবৎ বিভিন্ন অনিয়ম, নির্বাচিত ম্যানেজিং কমিটির অভাব, শিক্ষকদের গাফিলতির কারণে শিক্ষাকার্যক্রমসহ প্রতিষ্ঠানের ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন ছাত্র-ছাত্রী অভিভাবকবৃন্দসহ স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার (২৬ জুলাই) শালমারা দ্বী-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ে সাড়ে ১২ টায় সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় সব রুমে ঝুলছে তালা এবং প্রাইমারী স্কুলটি ও বন্ধ দেখা যায়।

নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে স্কুল মাঠের পূর্ব প্রান্তের একটি সেগুন গাছ ২৫ জুলাই সোমবার কর্তন করার অভিযোগ রয়েছে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। পূর্বেও জেলা শিক্ষা অফিসারকে বিভিন্ন অনিয়মের বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেছেন অভিভাবকবৃন্দ।

স্কুলের বারান্দায় বসে ঐ স্কুলের কিছু ছাত্রসহ বহিরাগত ছাত্ররা মোবাইলে গেম খেলছিলেন। সংবাদকর্মী দেখে তারা ছুটে এসে জানালেন, তাদের বিভিন্ন সমস্যার কথা। স্কুল কখন ছুটি হয়েছে জানতে চাইলে বলেন, তারা এসেও বন্ধ পেয়েছেন। তারা স্কুলের ক্লার্কের নাম্বার দিয়ে যোগাযোগ করতে বলেন।

স্কুলের ক্লার্ক নুর হালিম মুঠোফোনে বলেন, একটা রিপোর্ট করেন যে স্কুল বন্ধ। আপনাদের একটা রিপোর্ট করা দরকার। প্রধান শিক্ষকের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি তার ফোন নাম্বার দিয়ে বলেন, উনার দেখা আপনারা পাবেন না। উনি কখন স্কুল আসে আর কখন চলে যায়, তার কোনও ঠিক নাই। 

ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাহজাহান আলীকে ফোন দিলে তিনি জানান, তিনি ডিডি অফিসে আছেন। আজ দুপুর একটায় স্কুল ছুটি দিয়ে তিনি চলে এসেছেন। যখন তার সঙ্গে কথা হচ্ছিলো তখন ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২৪ কিঃমিঃ দুরত্বে রংপুর শহরে গিয়েও- আনুমানিক ১:২৫ মিনিট অথচ তিনি জানাচ্ছিলেন দুপুর একটায় ছুটি দিয়েছেন। গাছ কাটার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জানান, গাছ নিয়ম মেনে কর্তন করা হয়েছে। গাছ স্কুলের কাজে ব্যবহার হবে। ব্যস্ততার অজুহাতে তিনি স্কুলের দপ্তরিকে পাঠিয়ে দেওয়ার কথা জানান।

দপ্তরি জয়নাল হোসেন এসে জানান, হেড স্যার-আমাকে পাঠিয়েছে। প্রথমে গাছ কাটার বিষয়ে অস্বীকার করলে গাছ কর্তনের দিনে ধারনকৃত ছবি দেখালে পরে তিনি তা স্বীকার করেন এবং জানান, কোন সমস্যা নেই গাছ আছে। আমরা গাছটি স্কুলে রেখেছি। পরে সেটি কোথায় আছে দেখতে চাইলে তিনি তা দেখাতে পারেননি। শেষে তিনি শালমারা দ্বী-মূখী উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন বাজারে গিয়ে বিকালে হেড মাষ্টার দেখা করবে বলে জানান।

অভিভাবক ও দাতা সদস্য-আক্তার হোসেন, জিনাত মাহমুদ রাসেলসহ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান, স্কুলে পড়াশোনা নেই। দীর্ঘদিন থেকে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন হয়নি। ২০১৬ সাল থেকে এ্যাডহক কমিটি দিয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কৌশলে বিদ্যালয়টি পরিচালনা করে আসছেন। তিনি তার ইচ্ছামত স্কুলটি চালান। ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে মাত্রাতিরিক্ত ফিসহ চাঁদা আদায় করে আসছেন। সরকারি বিধি নিষেধ, নিয়মনীতির কোন তোয়াক্কা না করে যখন তখন স্কুলের গাছসহ বিভিন্ন সামগ্রী বিক্রি করছেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শাজাহান আলী।

স্কুলটির বিভিন্ন অনিয়ম, ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সংক্রান্ত বিষয় এবং গাছ কাটার অভিযোগ প্রসঙ্গে উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার তাছরিন আক্তার জানান, এই সপ্তাহেই আমরা স্কুলটিতে যাবো। তারপর বিভিন্ন অভিযোগের বিষয়ে খতিয়ে দেখা হবে।

অভিভাবকবৃন্দ ও সচেতন মহলের দাবি, স্কুলটির বিভিন্ন অনিয়ম,ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন ও পড়াশুনার মানোন্নয়নে দ্রুত ব্যবস্হা নিবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

প্রতিবেদক মু.নাজমুল হাসান

মন্তব্য করুন