ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:
ব্রেকিং নিউজ
  • অমর একুশে বইমেলা চলবে ১৭ মার্চ পর্যন্ত**
  • টাঙ্গাইলের কালিহাতিতে তিনটি ট্রাকের সংঘর্ষে ১ জন নিহত
  • গাইবান্ধায় পুলিশের সাথে বিএনপি’র ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া
  • ঘোষণা ছাড়াই বন্ধ পাসপোর্ট কার্যক্রম, ভোগান্তিতে মানুষ

নিউজ ডেস্ক

১ মার্চ ২০২২, ১৭:০৩

চট্টগ্রাম বন্দরে সুতার নামে এলো ২৫ কোটি টাকার সিগারেট

25812_855687478.jpg
ফাইল ছবি : চট্টগ্রাম বন্দর
চট্টগ্রাম বন্দরে চীন থেকে আসা সিগারেটের বড় একটি চালান জব্দ করা হয়েছে। চালানটিতে সুতা থাকার কথা ছিল। তবে মিথ্যা ঘোষণায় আনা চালানটিতে রয়েছে বিভিন্ন ব্রান্ডের এক কোটি ৬৮ লাখ ৩০ হাজার শলাকা সিগারেট। যার বাজার মূল্য প্রায় ২৫ কোটি টাকা।

চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস ও কাস্টমস গোয়েন্দা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা সোমবার চালানটি জব্দ করেছেন। এই চালানে আমদানিকারক প্রায় ২২ কোটি টাকা শুল্ক ফাঁকির চেষ্টা করেছিলেন বলে কাস্টমসের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।

চালানটির আমদানিকারক হিসেবে পাবনার ঈশ্বরদী রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চলের কারখানা তিয়ানি আউটডোরের নাম নথিতে উল্লেখ করা হয়। তাদের পক্ষে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ক্রনি শিপিং করপোরেশন এটি খালাস করার কথা।

চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপকমিশনার মো. মিজানুর রহমান বলেন, ‘চট্টগ্রাম রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চলে এই চালানটি শুল্কায়নের জন্য গত বৃহস্পতিবার ক্রনি শিপিং করপোরেশনের পরিবর্তে নথি জমা দেয় স্ট্যান্ডার্ড ফ্রেইটের কর্মচারী জহিরুল হক। এক প্রতিষ্ঠানের নথি আরেক প্রতিষ্ঠানের কর্মী জমা দেওয়ায় শুল্কায়নের সময় সন্দেহ হয়। সন্দেহ থেকে চালানটি যাচাই করে দেখা শুরু করি আমরা। এরই মধ্যে জহিরুল হক সটকে পড়েন। তাতে সন্দেহ আরো জোরালো হয়।’

কাস্টমস কর্তৃপক্ষ গত শনিবার স্ট্যান্ডার্ড ফ্রেইটের মালিককে ডেকে পাঠান। তাঁদের কাছ থেকে বিস্তারিত জানার পর চালানটির খালাস স্থগিত করে দেন তিনি। একই সময়ে ঈশ্বরদী ইপিজেডের মহাব্যবস্থাপকের কাছে শুল্কমুক্ত আমদানির এই চালানটির আমদানির অনুমতি রয়েছে কি না, তা জানতে চিঠি দেন। একই দিন ঈশ্বরদী ইপিজেড থেকে জানানো হয়, শুল্কমুক্ত আমদানির জন্য এই চালানটির আমদানির অনুমতি বা ইমপোর্ট পারমিট দেওয়া হয়নি। দেরি না করে ওই দিনই বন্দরকে চিঠি দেয় কাস্টমস, যাতে কনটেইনারটি সরেজমিন খুলে দেখার জন্য সুবিধাজনক স্থানে রাখা হয়। কাস্টমস বন্দরকে চিঠি দেওয়ার পর কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরও চালানটি নিয়ে যাচাই–বাছাই শুরু করে।

দুই সংস্থার কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সোমবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) কনটেইনার খুলে সব কার্টনে সিগারেট পাওয়া যায়। অথচ আমদানি নথিতে ছিল, চীন থেকে প্রায় ১৫ টন ওজনের ১৬ হাজার ৩২০ ডলার মূল্যের সুতা আনা হবে।

কাস্টমস গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মো. বশীর আহমেদ জানান, আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানটি চীনা মালিকানাধীন। প্রতিষ্ঠানটি তাঁবু তৈরি করে রপ্তানি করে।

আটক চালানের বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে বলে কাস্টমস সূত্র জানিয়েছে।